স্কুলছাত্রী রিশা হত্যায় ওবায়দুলের মৃত্যুদণ্ড

 

রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের ছাত্রী রিশা হত্যা মামলার একমাত্র আসামি ওবায়দুলকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

১০ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার ) দুপুরে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ এ রায় ঘোষণা করেন।

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায়, তিন বছর আগে কাটিং মাস্টার ওবায়দুলের ছুরিকাঘাতে নির্মমভাবে মরতে হয় সুরাইয়া আক্তার রিশাকে। রিশা হত্যাকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে আজ আদালত চত্ত্বরে হাজির হন তার সহপাঠীরা। যোগ দেন রিশার বাবা মাও।

এরপর মহানগর দায়রা জজ আদালতে হাজির করা হয় হত্যা মামলার একমাত্র আসামি ওবায়দুল খানকে। বাদী ও আসামিপক্ষের আইনজীবীদের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

রায়ে সন্তোষ জানালেও তা কার্যকরের আহ্বান জানান রিশার বাবা মা।

আসামীপক্ষের আইনজীবী বললেন, রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাবেন তারা। আর বাদী পক্ষের আইনজীবী উচ্চ আদালতেও রায় বহালের আহ্বান জানান।

২০১৬ সালের ২৪ আগস্ট উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের সামনের ফুট ওভারব্রিজে প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় রিশাকে ছুরিকাঘাত করে ওবায়দুল। স্কুলের শিক্ষার্থীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ২৮ আগস্ট সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এরপর রাজধানীসহ সারাদেশে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে ওই বছরের ৩১ আগস্ট নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সোনারগাঁও থেকে গ্রেফতার করা হয় এই মামলায় অভিযুক্ত ঘাতক ওবায়দুলকে।

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রিশাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন বলে আদালতে স্বীকারোক্তি দেন একমাত্র আসামি ওবায়দুল হক। তিনি রাজধানীর ইস্টার্ন মল্লিকা শপিংমলের বৈশাখী টেইলার্সের কর্মচারী ছিলেন।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ