সাভার ও আশুলিয়ায় পৃথক অভিযানে ইয়াবা ও ফেন্সিডিল সহ ০৩ জন গ্রেফতার।

সাভার উপজেলায় সাভার মডেল থানা ও আশুলিয়া থানায় পৃথক পৃথক অভিযানে ৫৮৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৪৬ বোতল ফেন্সিডিল সহ ০৩ জন আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪, সিপিসি -২, নবীনগর ক্যাম্প।

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) এলিট ফোর্স হিসেবে আত্মপ্রকাশের সূচনালগ্ন থেকেই বিভিন্ন ধরনের অপরাধ নির্মূলের লক্ষ্যে অত্যন্ত আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে আসছে। খুন, ডাকাতি, দস্যুতা, ধর্ষণ, অপহরণ, চাঁদাবাজি, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সন্ত্রাসী গ্রেফতার এবং জঙ্গীবাদের মত ঘৃণ্যতম অপরাধ নির্মূল ও রহস্য উৎঘাটনের পাশাপাশি মাদক দ্রব্য উদ্ধার, মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারসহ নেশার মরণ ছোবল থেকে তরুন সমাজকে রক্ষা করার জন্য র‌্যাব মাদক বিরোধী অভিযান জোরদার করেছে। বর্তমানে দেশে অর্থের লোভে বিপদগামী উঠতি বয়সের যুবকরাও এ ধরণের সন্ত্রাসী, নাশকতামূলক কর্মকান্ডে ও মাদক ব্যবসায় ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে পড়ছে এবং পেশাদার সন্ত্রাসী ও পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী হয়ে উঠছে। এ ধরণের সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য র‌্যাব সদা সচেষ্ট।

এরই ধারাবাহিকতায় ০২/০২/২০২০ তারিখ অনুমান সকাল ১০.০০ ঘটিকার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারা যায় যে, মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক দ্রব্য ক্রয় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সাভার মডেল থানাথীন বলিয়ারপুর এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে সিপিসি-২, র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল মেজর শিবলী মোস্তফা এর নেতৃত্বে প্রথমে ইং ০২/০২/২০ তারিখ ১১.৩০ ঘটিকায় সাভার মডেল থানাধীন বলিয়ারপুর সাকিনস্থ ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পার্শ্বে বলিয়ারপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন ক্যাফে ডে হাউজ এন্ড রেস্টুরেন্ট এর সামেন ফাঁকা জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে ৫৮৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ০১ টি মোবাইল সেট সহ মাদক ব্যবসায়ী মোঃ ফারুক হোসেন (৪০), পিতা- মোঃ শাহাজাহান আলী, সাং- সাথিয়া, থানা- সাথিয়া, জেলা- পাবনা, এ/পি- লালকুঠি (সবুজ বিশ্বাস এর বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা- দারুস সালাম, ডিএমপি’ঢাকাকে গ্রেফতার করেন এবং পরবর্তীতে একই তারিখ ১৭:০০ ঘটিকায় মেজর শিবলী মোস্তফা এর নেতৃত্বে সাভার উপজেলার আশুলিয়া থানাধীন রাইসমিল সাকিনস্থ কাশিমপুর পূর্ব শ্রীপুরগামী পাকা রাস্তা সংলগ্ন পাগলা মার্কেটে দিনাজপুর লন্ড্রি দোকানের সামনে পাঁকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে ৪৬ বোতল ফেন্সিডিল ও ০২ টি মোবাইল সেট সহ আসামী ১) মোঃ রফিকুল ইসলাম (৩৪), পিতা- মৃত আমিনুল ইসলাম, সাং- চকমুশা, থানা-চিরির বন্দর, জেলা- দিনাজপুর ও ২) মোঃ শরিফুল ইসলাম (৩৩), পিতা- মোঃ আয়ুব আলী, সাং- চকমুশা, থানা-চিরির বন্দর, জেলা- দিনাজপুর, এ/পি- সারদাগঞ্জ (হাবু মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া), থানা- কাশিমপুর, জেলা- গাজীপুরদ্বয়ের গ্রেফতার করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, আসামীরা বিভিন্ন জায়গা থেকে ইয়াবা ও ফেন্সিডিল ক্রয় করে ঢাকা জেলার বিভিন্ন এলাকায় খুচরা বিক্রয় করে থাকে।

উপর্যুক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ