শুন্যতায় বাংলা নববর্ষ ১৪২৭

বাংলা নববর্ষ ১৪২৭ আজ; চৈত্র সংক্রান্তির মধ্যদিয়ে ১৪২৬ সনকে বিদায় জানিয়ে বাংলা বর্ষপঞ্জিতে যুক্ত হলো নতুন বছর।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের বাঙালি করোনা মহামারি থেকে সহসা মুক্তির প্রত্যাশা নিয়েই আজ প্রথমবারের মতো নতুন বছরকে বরণ করে নেবে তেমন কোনো আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই।

আজ পহেলা বৈশাখে বর্ণিল উৎসবে মাতার কথা দেশ। সকালে ভোরের প্রথম আলো রাঙিয়ে দেয় নতুন স্বপ্ন, প্রত্যাশা আর সম্ভাবনাকে। রাজধানী জুড়ে থাকার কথা মঙ্গল শোপভাযাত্রা নিয়ে বর্ষবরণের নানা আয়োজন। কিন্তু বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে এখন চলছে করোনাকাল। মানুষের পৃথিবীতে এখন চলছে অনিশ্চিত সময়।

এক বছর আগের বর্ষবরণে চারুকলা ছিল মৌতাতে ভরপুর। রঙিন পোশাকে সুবেশ তরুণ–তরুণীর ঢল ছিল, রঙিন বেলুন হাতে অবাক বিস্ময়ে বাবার ঘাড়ে ছিল ছোট্ট শিশু, ছিল ভেঁপুর কর্কশ শব্দ, ছিল হাওয়াই মিঠাই, ছিল সুরের নহর, ছিল প্রাণোচ্ছল মানুষের পদভারে কম্পিত প্রাঙ্গণ। অথচ এক বছর বাদে আমাদের নাগরিক বর্ষবরণের প্রাণকেন্দ্র শাহবাগ এখন নিষ্প্রাণ। চারুকলা লকডাউন। বকুলতলা নিঃশব্দ। চারুকলার প্রাচীরে পুরোনো পলেস্তারায় নতুন রঙের প্রলেপ পড়েনি এবার। হয়নি কোনো নতুন আলপনা।

প্রাচীরের গা ঘেঁষে রঙিন চুড়ি আর লেইস ফিতা, বাঁশি ও খেলনার দোকান বসেনি। সেখানে বসে বিরক্ত মুখে প্রায় মানুষহীন চারুকলা পাহারা দিচ্ছেন কিছু ঘরহীন মানুষ। সোহরাওয়ার্দী পার্কে ঢোকার প্রায় সব পথ বন্ধ। কোনো কোনো পথে পুলিশের সদস্যরা দাঁড়িয়ে আছেন মানুষ আসবে না জেনেও। শাহবাগের ফুলের বাজার বন্ধ। কোথাও কোনো সৌরভ নেই নিষ্প্রাণ শাহবাগে। শুধু শাহবাগ নয়, পুরো শহর নিষ্প্রাণ, পুরো দেশে নৈঃশব্দ্য।

পরিবারের সবাইকে নিয়ে বাড়িতে বসেই নববর্ষের আনন্দ উপভোগ করুন এবং আপনারা বিনা কারণে ঘরের বাইরে যাবেন না বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরো বলেন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী ও বিজিবি সদস্য এবং প্রত্যক্ষভাবে নিয়োজিত প্রজাতন্ত্রের অন্যান্য কর্মচারীর জন্য স্বাস্থ্য বীমার ব্যবস্থায় কাজ করবে সরকার ।

বাংলা নববর্ষ ১৪২৭ উপলক্ষে দেশের সকলকে জানাই চ্যানেল টি ওয়ানের পক্ষ থেকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা।

“ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন”

 

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ