শিবির সন্দেহে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চার ছাত্রকে নির্যাতনের ঘটনায় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ।

শিবির সন্দেহে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের চার ছাত্রকে নির্যাতনের ঘটনায় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) সকলে রাজু ভাষ্কর্যে মানববন্ধন করছেন নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থীদের বিভাগের সহপাঠীরা। নির্যাতনকারীদের বিচার দাবিতে একই স্থানে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে সন্ত্রাস বিরোধী ছাত্র ঐক্য ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

এছাড়া গতকাল দোষীদের বিচার দাবিতে রাজু ভাষ্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন নির্যাতনের শিকার এক ছাত্র। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় কোন প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জহুরুল হক হলের সানোয়ার হোসেন, মুকিম চৌধুরী, মিনহাজ ও আফসারকে শিবির সন্দেহে নির্যাতন করে হল সংসদ নেতারা। রাত ১১টার দিকে জহুরুল হক হলের গেস্টরুমে ছাত্রলীগের নিয়মিত গেস্টরুম চলছিল। তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মুকিম চৌধুরীকে শিবির সন্দেহে গেস্টরুমে ডাকা হয়। সেখানে হল শাখা ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সহ-সভাপতি সানোয়ার হোসেন ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আমির হামজা তাদের অনুসারীদের দিয়ে মুকিমকে প্রথমে মানসিকভাবে চাপ দেয়। এতে স্বীকার না করায় তাকে লাঠি, স্টাম্প ও রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। পরে তার ফোন কললিস্ট দেখে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সানওয়ার হোসেনকে গেস্টরুমে আনা হয়। সেখানে তাকেও বেধড়ক মারধর করেন ছাত্রলীগের নেতারা। মারধর সহ্য করতে না পেরে উভয়ই মেঝেতে শুয়ে পড়েন। কিছুক্ষণ পর ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মিনহাজ উদ্দীন এবং একই বর্ষের আরবি বিভাগের শিক্ষার্থী আফসার উদ্দীনকে ধরে গেস্টরুমে আনা হয়। সেখানে রাত ২টা পর্যন্ত তাদের ওপর নির্যাতন করেন ছাত্রলীগ নেতারা। পরে রাত ২টার পর তাদের প্রক্টরিয়াল টিমের মাধ্যমে শাহবাগ থানায় হস্তান্তর করা হয়। পরদিন তাদের থানা থেকে নিতে আসেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ