শিক্ষার মান ধরে রাখতে না পারলে এমপিও বাতিল হবে: প্রধানমন্ত্রী

নতুন করে ২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হলো।  ২৩ অক্টোবর (বুধবার)দুপুরে গণভবনে এর তালিকা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষার মান না বাড়লে এমপিওভুক্ত এসব প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত কাটা যাবে বলেও কড়া নির্দেশণা দেন তিনি। আর যেসব প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত অর্জন করতে পারেনি তাদেরকে নীতিমালার নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

দীর্ঘ ৯ বছর এমপিওভুক্তি বন্ধ ছিল। ২০১০ সালে এক হাজার ৬২৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করে সরকার। এরপর থেকে এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষক-কর্মচারীরা আন্দোলন করে আসছেন।

আন্দোলনের মুখে ২০১৮ সালের জুলাইয়ে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

গত আগস্টে এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করে নয় হাজার ৬১৪টি প্রতিষ্ঠান। নীতিমালা অনুযায়ী যাচাই বাছাই করে চূড়ান্ত তালিকা দুপুরে গণভবনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ও উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন। পরে তা উম্মুক্ত করেন সরকার প্রধান।

পরে প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশের উন্নয়নে শিক্ষাকে বেছে নিয়েছিলেন। প্রাথমিক শিক্ষাকে অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক করেছিলেন। সেই পথেই এগিয়ে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। অভিনন্দন জানান, নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট সকলকে।

প্রধানমন্ত্রী আশা দেন, এমপিওভুক্তিতে যোগ্যতা অর্জন করতে না পারা প্রতিষ্ঠানকেও। তবে এমপিওভুক্তির ক্ষেত্রে দুর্গম এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে কিছুটা ছাড় দেয়ারও ঘোষণা দেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, শিক্ষাকে সব সময় গুরুত্ব দেয় সরকার। কারণ, শিক্ষিত জাতিই পারে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়তে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, এমপিওভুক্ত ২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্কুল ও কলেজের সংখ্যা ১ হাজার ৬৫১টি, মাদরাসা ৫৫৭টি এবং কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৫২২টি। সম্পূর্ণ নতুন স্কুল-কলেজ এমপিওভুক্ত হচ্ছে ৬৮০টি এবং প্রতিষ্ঠানের নতুনস্তর এমপিওভুক্ত হচ্ছে এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৯৭১টি। নতুন এমপিওভুক্তির মধ্যে নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪৩৯টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১৪৬টি, স্কুল অ্যান্ড কলেজ দুটি এবং কলেজ ৯৩টি। আর স্তর এমপিওভুক্ত হয়েছে এমন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৮৪৯টি, স্কুল অ্যান্ড কলেজ ৬৬টি এবং কলেজ ৫৬টি। আর নতুন এমপিওভুক্ত দাখিল মাদরাসার সংখ্যা ৩৫৯টি, প্রতিষ্ঠানের নতুনস্তর এমপিওভুক্ত হচ্ছে এমন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে আলিম ১২৭টি, ফাজিল ৪২টি ও কামিল ২৯টি। কারিগরির সব প্রতিষ্ঠানই নতুন এমপিওভুক্ত হচ্ছে। এর মধ্যে কৃষি ৬২টি, ভোকেশনাল স্বতন্ত্র ৪৮টি, ভোকেশনাল সংযুক্ত ১২৯টি, বিএম স্বতন্ত্র ১৭৫টি ও বিএম সংযুক্ত ১০৮টি।

 

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ