রাজধানীতে এবার ২৩ স্থানে বসবে পশুর হাট

উত্তর এবং দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মিলে এবার রাজধানীতে ২৩টি স্থানে গরুর হাট বসবে বলে জানিয়েছে দুই সিটি কর্তৃপক্ষ।

গরুর হাটগুলোতে তিন স্তরের নিরাপত্তার পাশাপাশি জাল নোট সনাক্তকরণ মেশিন এবং বৃষ্টিকে মাথায় রেখে বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। জনদুর্ভোগের ও যানজটের কথা চিন্তা করে এবার নির্দিষ্ট স্থানের বাহিরে রাস্তায় হাট বসালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও জানান দুই সিটি কর্পোরেশন।

খোঁড়া হচ্ছে মাটি, বসানো হবে খুঁটি। সামনেই কোরবানি ঈদ, তাই পশুর হাটগুলোকে সাজাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন শ্রমিকরা। সূত্র জানায়, কোরবানির পশু বেচাকেনায় এবার রাজধানীর উত্তর সিটি কর্পোরেশনে ব্যবস্থা থাকছে ৯টি পশুর হাট এবং দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে থকছে ১৪টি পশুর হাট। এরই মধ্যে বেশির ভাগ হাটের প্রায় ৮০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান ইজারাদাররা।

পশুর হাট প্রস্তুতে কাজ চলছে

হাটগুলো যেন জনদুর্ভোগের কারণ না হয় সেদিকেও নজর রাখার পরামর্শ সচেতন নাগরিকের।

পশুর হাটগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় পর্যাপ্ত সিসিটিভি, জাল নোট সনাক্তকরণ মেশিনের ব্যবস্থা রাখা হবে বলে জানায় দুই সিটি কর্পোরেশন। সেইসাথে নির্দিষ্ট স্থানের বাহিরে পশুর হাট সম্প্রসারণ করলে নেয়া হবে কঠোর ব্যবস্থা।

ডিএনসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা বলেন, পশু ক্রেতা-বিক্রেতাদের কোনরকম হয়রানি বা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি যাতে না হয় সেদিকে পূর্ণ নজর রাখা হবে।

ডিএসসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমোডর মো. জাহিদ হোসেন বলেন, নির্দিষ্ট স্থানের বাইরে পশুর হাট সম্প্রসারণের বিরুদ্ধে নেয়া হবে কঠিন ব্যবস্থা।

হাটগুলোতে কোরবানির পশু প্রতি হাসিল নির্ধারণ করা হয়েছে শতকরা ৫ ভাগ।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ