রংপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেে এক দম্পতি, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠয়িছেে পুলিশ

নূরুল হুদা নাহিদ ,রংপুর প্রতিনিধি:

৮ অক্টোবর মঙ্গলবার  একটার দিকে নজিদেরে শয়নকক্ষ থকেে সাবরে আলী (৫০) ও তার স্ত্রী মুক্তারা বেগমের (৪০) মরদহে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনাটি ঘটছেে রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার বালাটারী গ্রাম।পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পারবিারকি কলহ জরে  এ আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটছে। তবে পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী আত্মহত্যা করছেন।

এলাকাবাসীর কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করার র্শতে এক ব্যাক্তি জানান প্রায় তাদের স্বামী- স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি ,মারামারি লেগেইে থাকতো। কিন্তৃৃৃৃৃৃৃৃৃৃু কি বিষয়ে কলহ সে ব্যাপারে বলতে পারেননি।

নিহত সাবের-মুক্তারা দম্পতির দুই মেয়ে ও এক ছেলে সন্তান রয়েছে।ঘটনার দিনে সকালে বড় মেয়ে প্রাইভেট পড়তে যায়। আর ছোট দুই ছেলে ও মেয়ে এ সময় বাহিরে খেলেতে গিয়েছিল

এদকিে দুপুরে প্রাইভেট পড়া শেষে বড় মেয়ে বাড়িতে ফিরে এসে বাবা-মায়ের শয়নকক্ষের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। অনেক ধাক্কাধাকক্কির পর দরজা না খুললে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে দরজা ভেঙে ভেতরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় সাবের আলী ও মুক্তারার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ বেলা ১টার দিকে এসে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে গঙ্গাচড়া মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত র্কমর্কতা (ওসি) মশউির রহমান এর সাথে মুটোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করেছে। ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালের র্মগে পাঠানো হয়েছে রহস্য উদঘাটনে তদন্ত চলছে।

 

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ