ময়মনসিংহ মেডিকেলের শিক্ষার্থীকে কোপানো মামলায় যাবজ্জীবন

 

হোসাইন আহাম্মেদ সুলভ, ময়মনসিংহ :

২০১৪ সালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী রেজা হাসান ত্বকীকে কুপিয়ে পঙ্গু করার মামলায় আসামি আবু সাঈদ লিমনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। ময়মনসিংহের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক মুহাম্মদ নূরুল আমীন বিপ্লব ১৬ সেপ্টেম্বর এ রায় ঘোষণা করেন। আসামি লিমন জেলহাজতে রয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালের ১৪ জুন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রেজা হাসান ত্বকী সকালে কলেজে যাওয়ার পথে ভাটিকাশর আলিয়া মাদ্রাসা কোয়ার্টার এলাকায় প্রতিবেশী আবু সাঈদ লিমন দা দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। ত্বকীর আত্মচিৎকারে আশেপাশের লোকজন লিমনকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারযোগে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আড়াই মাস সেখানে চিকিৎসার পর অবস্থার আরো অবনতি হলে ত্বকিকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়। ঘটনার দুইদিন পর ত্বকীর বোন জামাই কবির হোসেন বাদী হয়ে কোতোয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। বর্তমানে ত্বকী পঙ্গু অবস্থায় জীবন যাপন করছে।

দীর্ঘ শুনানী শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক আসামী আবু সাঈদ লিমনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেন এবং ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড ও অনাদায়ে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন আদালত।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ