ময়মনসিংহে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

আলমগীর সরকার, ময়মসিংহ :
ময়মনসিংহের পাগলা থানা এলাকায় এক মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের পর তিন সপ্তাহ আটকে রেখে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বিপ্লবকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
বুধবার দিবাগত রাত ৪টার দিকে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার গুজিয়া গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ মামলার অপর দুই আসামি শারফুল (২৬) ওয়াসির খান (২৮) এখনো পলাতক রয়েছেন।
গ্রেপ্তারকৃত প্রধান আসামি বিপ্লব (৩৫) উস্থি ইউনিয়নের দাইরগাঁও গ্রামের বাসিন্দা। অপর দুই পলাতক আসামি হলেন কলুরগাঁও গ্রামের শারফুল ও ওয়াসির খান।
পাগলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফাইয়েজুর রহমান এ খবর নিশ্চিত করে জানান, মামলার পর থেকেই আসামিরা পলাতক ছিলেন। গোপন খবর পেয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) সাইয়েদুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে রাতে বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ থেকে বিপ্লবকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরিদর্শক ফাইয়েজুর রহমান আরো জানান, গত ৬ অক্টোবর বিপ্লব, শারফুল ও ওয়াসির ওই ছাত্রীকে বাড়ির সামনে থেকে অপহরণ করে নিয়ে যান। পরে তারা ঢাকা ও ময়মনসিংহের বিভিন্নস্থানে নিয়ে আটকে রেখে ধর্ষণ করেন।
এদিকে মেয়েকে না পেয়ে তার বাবা পাগলা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এর ২৫ দিন পর ভোরে ওই ছাত্রীকে তার বাড়ির কাছের এক রাস্তায় অচেতন অবস্থায় ফেলে যায় অপহরণকারীরা। ভোরে স্থানীয়রা পড়ে থাকা অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়। তারা এসে মেয়েটিকে বাড়ি নিয়ে যায়।
মেয়েকে পাওয়ার পর তার বাবা আ. রশিদ বাদী হয়ে পাগলা থানায় ওই তিনজনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন।
ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসাছাত্রী এ বছর জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অপহৃত হওয়ার কারণে পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি সে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ