মেস ভাড়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় ময়মনসিংহের শিক্ষার্থীরা

আলমগীর সরকার, ময়মনসিংহ:

করোনা মহামারির প্রভাবে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো গত ১৮ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষামন্ত্রালয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ময়মনসিংহের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রশাসন অনিষ্টকালের জন্য‌ স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে। পরবর্তীতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সেপ্টম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখার ইঙ্গিত দেয়। তবে বন্ধ সময়ে যেসব শিক্ষার্থী মেসে থাকতেন তাদের অনেকেই ভাড়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। ময়মনসিংহ আনন্দ মোহন কলেজ এর একাধিক শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে এমনই দুশ্চিন্তার কথা জানা গেছে। শিক্ষার্থীরা বলছেন, এই পরিস্থিতিতে পরিবারের পক্ষ থেকে মেসের ভাড়া দেওয়া কঠিন। আর যারা টিউশনি করে চলতাম, এমন পরিস্থিতিতে তাও বন্ধ হয়ে গেছে। কীভাবে মেস ভাড়া দিবো তা নিয়ে যেন দুশ্চিন্তার শেষ নেই।

নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান মো জাকির হোসেন আনন্দমোহন কলেজের গণিত বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষে ছাত্র। টিউশনি করেই পড়াশোনা খরচসহ ভাড়ায় মেসে থাকেন। টিউশনি করে যা আয় হয়, তার বেশিরভাগই চলে যায় ভাড়াসহ মেসের আনুষাঙ্গিক খরচ মেটাতে।

মুমিনুন্নিসা সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী শারমিন সুলতানা মুক্তা বলেন দীর্ঘ দুই মাস যাবত মেস এ থাকা হচ্ছে না কিন্তু বাড়ির মালিক ফোন দিয়ে বাড়ার জন্য চাপ দিচ্ছে।

শহরের একজন বাড়ির মালিক নুরুল ইসলাম সাথে কথা বলে তিনি জানান সরকার কি আমাদের গ্যাস বিল বিদ্যুৎ বিল মাফ করে দিয়েছে যে আমরা ভাড়া মাফ করে দিব।

এ বিষয়ে আনন্দমোহন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মাহমুদুল হাসান সবুজ বলেন ময়মনসিংহ শহরে বসবাস করা বেশিরভাগ ছাত্রছাত্রী মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান কেউ টিউশনি করে কেউ পার্ট টাইম জব করে পড়ালেখার খরচ ও নিজের খরচ চালায়‌‌। করোনা ভাইরাস কারণে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় গত দুই মাস যাবত ময়মনসিংহের সকল ছাত্র-ছাত্রী নিজ বাড়িতে অবস্থান করছে এমন অবস্থায় সকলের জন্য মেস ভাড়া দেয়াটা জুলুম হয়ে যায়।তিনি আরো বলেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু ও ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক এ বিষয়ে অবশ্যই সঠিক নির্দেশনা ও সিদ্ধান্ত নিবেন এমনটাই আশা করছে ছাত্রসমাজ।

ছাত্র-ছাত্রীদের মেস ভাড়া বিষয়ে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন ইতিমধ্যেই অনেক বাড়ির মালিকের সাথে আমি নিজে কথা বলেছি ও অনুরোধ করেছি মানবিক দৃষ্টিতে ছাত্র-ছাত্রীদের মেস ভাড়া বিষয় এ বিবেচনায় নিয়ে যতটুকু সম্ভব ছাড় দেওয়া যায় এ বিষয়ে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে বাড়ি মালিকদের প্রতি অনুরোধ থাকবে। তিনি আরো বলেন ময়মনসিংহে শহরে বসবাস করা ছাত্রছাত্রীদের একটি তালিকা করা হবে ও তালিকা অনুযায়ী একটি ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ মিজানুর রহমান বলেন মেসে থাকা ছাত্র-ছাত্রীদের একটি তালিকা চেয়েছি আমরা তালিকা হাতে পেলে আমরা একটি ব্যবস্থা গ্রহণ করব ছাত্র-ছাত্রীদের কোনরকম বিরম্বনা হয়রানির শিকার না হয়।

 

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ