‘মীনা’ কার্টুনের অমর স্রষ্টা রামমোহন আর নেই

 

শিশুদের জন্য দারুণ শিক্ষামূলক ও জনপ্রিয় কার্টুন ‘মীনা’র স্রষ্টা অ্যানিমেশন শিল্পী রামমোহন আর নেই। শুক্রবার (১১ অক্টোবর) ৮৮ বছর বয়সে তিনি মুম্বাইয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

রামমোহনের জন্ম ১৯৩১ সালে। মাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে স্নাতক শেষ করে মুম্বাইয়ে যান স্নাতকোত্তর পড়াশুনা করতে। কিন্তু পড়াশুনা বাদ দিয়ে ১৯৫৬ সালে তিনি ভারত সরকারের কার্টুন ফিল্মস শাখায় কাজ শুরু করেন। ওয়াল্ট ডিজনি স্টুডিওস থেকে তিনি প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন। সরকারি চাকরিতে থাকতেই তিনি বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ অ্যানিমেশন কাজ করেন এবং আন্তর্জাতিক সম্মাননাও পান।

১৯৬৮ সালে ফিল্মস বিভাগের চাকরি ছেড়ে প্রসাদ প্রোডাকশনসের অ্যানিমেশন বিভাগের প্রধান হিসেবে যোগ দেন রামমোহন। এরপর ১৯৭২ সালে নিজের প্রতিষ্ঠান রামমোহন বায়োগ্রাফিক্স প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। এ প্রতিষ্ঠান থেকেই তার গুরুত্বপূর্ণ কাজ ‘রামায়ণ: দ্য লিজেন্ড অব প্রিন্স রাম’ (১৯৯২) বহুল প্রশংসা ও জনপ্রিয়তা পায়। ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠানটি ইউটিভি গ্রুপে যুক্ত হয়।

রামমোহন প্রায় ১৪টি সিনেমায় অ্যানিমেটর হিসেবে কাজ করেছেন। তার সর্বাধিক জনপ্রিয় ও শ্রেষ্ঠ কাজ বলা যায় তার সৃষ্ট ‘মীনা কার্টুন’। জাতিসংঘের ইউনিসেফ এবং ঢাকাভিত্তিক প্রতিষ্ঠান টুনবাংলার সহযোগিতায় এই কার্টুন নির্মাণ করেন তিনি।

দক্ষিণ এশিয়ার মেয়েরা যেসব সামাজিক ও পারিবারিক সংকটের সম্মুখীন হয়, সেসব বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির জন্যই এই কার্টুন নির্মাণের উদ্যোগ নেয় ইউনিসেফ। কিন্তু উপমহাদেশের সকল ধর্ম-বর্ণ-গোত্র ও দেশের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি চরিত্র নির্মাণ করা অনেক কঠিন কাজ ছিল। সেই কঠিন কাজটিই সমাধা করেছিলেন রামমোহন।

উপমহাদেশে যতদিন শিশু অধিকার ও ছেলে-মেয়ে বৈষম্য নিয়ে সচেতনতার কথা বলা হবে ততদিন পর্যন্ত মীনা কার্টুনের গুরুত্ব শেষ হবে না। আর এর মধ্য দিয়েই অমর হয়ে থাকবেন মীনা’র স্রষ্টা রামমোহন।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ