মনপুরায় গণধর্ষণ: সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নজরুল গ্রেফতার

ভোলা প্রতিনিধি॥
ভোলার মনপুরায় ছাত্রলীগের সাবেক নেতাসহ ৫ দুর্বৃত্ত কর্তৃক স্পীডবোটযাত্রী এক গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনায় সাবেক ছাত্রলীগের নেতা নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
রবিবার (২৭ অক্টোবর) ভোর রাতে মনপুরা উপজেলার দক্ষিন সাকুচিয়া ইউনিয়নের রহমানপুর গ্রাম থেকে পুলিশ সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নজরুলকে গ্রেফতার করে।
শনিবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে আড়াই বছরের পুত্র সন্তান নিয়ে চরফ্যাশনের বেতুয়াঘাট থেকে স্পীডবোটে চড়ে বিশাল মেঘনা নদী পাড়ি দিয়ে মনপুরার জনতা বাজার যাচ্ছিলেন এক গৃহবধূ। কিন্তু স্পীডবোটে থাকা ৪ যাত্রী ঐ গৃহবধূকে গন্তব্যস্থলে যেতে না দিয়ে সাগর মোহনার চর পিয়ালে নিয়ে গণধর্ষণ করে গভীর বনাঞ্চলে ফেলে চলে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় স্পীডবোটের মালিক দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম। সেখানে গিয়ে তিনি ৪ ধর্ষককে গালমন্দ করে তাড়িয়ে নিজেই ওই মহিলাকে ধর্ষণ করে। এসময় নজরুল মহিলার সঙ্গে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে। ধর্ষণের খবরটি কাউকে বললে ভিডিওটি ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরে মহিলাকে মনপুরা যেতে না দিয়ে স্পীডবোটে করে চরফ্যাশনে রেখে আসে। চরে থাকা মহিষের বাতানদের কাছ থেকে খবর পেয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অলিউল্লাহ কাজলসহ স্থানীয়রা মহিলাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। থানায় গিয়ে মহিলা বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।
এত বড় একটি ঘটনার পরও পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বদেয়নি। বিষয়টি গণমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়লে নড়েচড়ে বসে পুলিশ। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযানে নামে তারা। গ্রেফতার করে ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ধর্ষক নজরুল ইসলামকে।

মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শাখাওয়াত হোসেন জানিয়েছেন, আসামীরা ধর্ষণ শেষে ঘটনাস্থল থেকেই পালিয়ে গেছে। তাদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের কয়েকটি টীম মনপুরার প্রত্যন্ত চরাঞ্চলে অভিযান চালাচ্ছে। রবিবার ভোর রাতে নজরুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর আগে কলেজছাত্রী ধর্ষণের হোতা ছাত্রলীগ নেতা রাকিবসহ এ ঘটনার আসামীদেরও শীঘ্রই গ্রেফতার করা সম্ভব হবে বলে আশা করছেন তিনি।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ