ভোলার মেঘনায় আটকা পড়া কার্গোতে ডাকাতের হামলার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে পুলিশ সুপার

 

ইমতিয়াজুর রহমান, ভোলা :

ভোলা সদর উপজেলার মেঘনা নদীর ভোলার চর নামক স্থানে আটকা পড়া কার্গোতে বন্ধুকধারী ডাকাতের হামলার ঘটনাস্থলে গিয়েছেন ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার।

সোমবার সকালে ইলিশা ফেরিঘাট থেকে স্পিড বোটে ভোলার পুলিশ সুপার সরজমিনে যান।

এদিকে ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার নিজে মেঘনার নদীর ভোলার চরে পরিদর্শনে যাওয়ায় স্বস্তি পেয়েছে জেলে ও চরে বসবাসকারীরা।

জেলেরা জানান, মেঘনা নদীতে দীর্ঘদিন পর্যন্ত কোন দস্যুতার ঘটনা ঘটেনি তবে হঠাৎ গত ১৪ নভেম্বরে আশফাক নামের একটি লালবালির আটকা পড়া কার্গোতে দস্যুরা হামলা করে এই সময় তাদের ভয়ে রির্জাভ তৈলের ট্যাংকিতে পালাতে গিয়ে ডালিম নামের একজন মৃত্যুবরণ করেন।

নয়া দস্যুদের খবর শুনে জেলে ও চরবাসীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তবে আজ ভোলার পুলিশ সুপার নিজে সরজমিন পরিদর্শনে যাওয়ায় তারা স্বস্তি পেয়েছে। তারা জানান এসপি ও ওসি স্যার পরিদর্শনে আশায় আমরা খুশি, আমরা বিশ্বাস করি ভোলার পুলিশ সুপার মহোদয় যেহেতু নিজে চরে এসেছে এই চরে কোন দস্যুর স্থান হবে না।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সদর থানার ওসি এনায়েত হোসেন, রাজাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিজানুর রহমান খান, ইলিশা ফাঁড়ির ইনচার্জ শ্রী রতন শীল প্রমুখ।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ