বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে ভোলায় মানববন্ধন

ভোলাপ্রতিনিধি : 

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নির্মম ভাবে হত্যার প্রতিবাদে ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে জাতীয় বন্ধুজন পরিষদ ভোলা ।

মঙ্গলবার ৮ (অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে ভোলা কালীনাথ রায়ের বাজার বন্ধুজন পরিষদ কার্যালয়ের সামনে বন্ধুজন পরিষদের প্রধান সমন্বয়কারী আসিফ আলতাফের নেতৃত্বে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ।

এসময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক আজকের ভোলার সম্পাদক আলহাজ মুহাম্মদ শওকাত হোসেন, নাজিউর রহমান কলেজের উপাধ্যক্ষ পীযুস কান্তি হালদার, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শাজাহান মিন্টু মোল্লা, বন্ধুজন পরিষদের সদস্য হেলালউদ্দিন, রাসেল মাহমুদ, ব্যবসায়ী আ: রহমান সেন্টু, সমাজকর্মী আবুল হাসনাত তসলিম, বন্ধুজন পরিষদের সদস্য খন্দকার আল আমিন, মো: সোহেব, নাজিম উদ্দিন নিক্সন, আল আমিন হাওলাদার, মো: জাহাঙ্গীর আলম, ইস্রাফিল, শাহাদাত শাকিল, আবদুল্লা আল রাসেল সহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডটি বাংলাদেশের ইতিহাসে বর্বর ও কলংঙ্ক জনক ঘটনা। দেশের সবচেয়ে মেধাবীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বুয়েটের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে একটি সাধারন স্টাটাস নিয়ে এরকম একটি নির্মমহত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটবে তা কোন সুস্থ স¦াভাবিক মানুষ মেনে নিতে পারেনা । সে স্টাটাসে আবরার ফাহাদ কাউকে কুটক্তি করে কিছু লিখেনি। কিন্তু যারা এই স্টাটাসের রেশ ধরে তাকে শিবির বলে মারধর করে হত্যা করেছে তাদের এই অধিকার কে দিয়েছে..? বিরোধী মতের হলেই কাউকে আক্রমন করা হবে তা স্বাধীনরাষ্ট্রে মেনে নেওয়া যায়না। এরকম বর্বর সমাজ ব্যবস্থা তৈরীর জন্য এদেশ স্বাধীন হয়নি।

এসময় বক্তরা আবরার হত্যাকান্ডের বিচার দাবি করে বলেন, যারা এ ঘটনার সাথে জড়িত সে দল বা মতের হোক তাদেরকে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে। যাতে করে আগামীতে কেউ এধরনের অপরাধ করার সাহস করতে না পারে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ