দেয়াল লিখনে রাবি প্রশাসনের বাঁধা, ছাত্রফ্রন্টের নিন্দা

রাবি প্রতিনিধি:

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্যাম্পাসে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (রাকসু) নির্বাচনের দাবিতে দেয়াল লিখনে প্রশাসনের বাঁধা দেয়ার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট। সোমবার দুপুরে সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘটনায় নিন্দা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ‘গত শনিবার রাত ৯টায় রাবি শাখা সভাপতি রিদম শাহরিয়ারের নেতৃত্বে রাকসু নির্বাচনের দাবিতে দেয়াল লিখনের কাজ চলছিলো। একপর্যায়ে বিনোদপুর গেটের ভেতরে একটি দেয়ালে লিখনের সময় শাহ মখদুম হলের প্রাধ্যক্ষ মো. আরিফুর রহমান এসে বাঁধা প্রদান করেন। প্রাধ্যক্ষ দেয়াল লিখনের উপকরণ জোরপূর্বক আটকে রাখেন। এসময় নেতা-কর্মীদের সাথে অসৌজন্য-মূলক আচরণ এবং পুলিশ ডেকে আটকের চেষ্টা করা হয়েছে। পরের দিন এগুলো ফেরত চাইতে এলে পুরো দেয়াল রং করার অর্থ দাবি করা হয় বলে বিজ্ঞপ্তিতে অভিযোগ করা হয়েছে।’

প্রশাসনের ভূমিকা প্রসঙ্গে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট মনে করে বিশ্ববিদ্যালয় একটি গণতান্ত্রিক জায়গা। ক্যাম্পাসে পড়াশুনার পাশাপাশি মিছিল-মিটিং, সভা-সেমিনার, সিম্পোজিয়াম, দেয়াল লিখন, পোস্টারিং সহ মুক্ত বুদ্ধির চর্চা থাকবে এটাই স্বাভাবিক।’ গণতান্ত্রিক চর্চায় রাবি প্রশাসনের এরকম ভূমিকাকে ন্যাক্কারজনক অভিহিত করে এ ঘটনার নিন্দা জানান তারা।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন স্থানে, দেয়ালে- ‘অবিলম্বে রাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা কর’, ‘গবেষণা খাতে বরাদ্দ বাড়াও’, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে আপনার বাণিজ্যিক ব্যবহার বন্ধ কর’সহ লিখনীর মাধ্যমে শিক্ষার বিভিন্ন দাবি তুলে ধরা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, শাহ মখদুম হলের প্রাধ্যক্ষ মো. আরিফুর রহমান ফোন করে বিষয়টি আমাকে জানালে আমি সহকারী প্রক্টর হুমায়ন কবিরকে সেখানে পাঠিয়েছিলাম। পরের দিন তাদেরকে প্রক্টর দপ্তরে দেখা করতে বলা হয়েছিলো কিন্তু তারা অফিসে আসেনি।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ