দূর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের অভিযানকে সর্বাত্মক সমর্থন – জি.এম. কাদের

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান, বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, “সত্যিকারভাবে জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করতে হলে এমন কাজ করতে হবে, যে কাজে জনগণ আমাদের উপর আস্থা রাখবে ও বিশ্বাস করবে। সাংগঠনিক কর্মকান্ড শক্তিশালী, সুসংগঠিত, শৃঙ্খলিত ও একত্রিতভাবে কাজ করলে মানুষের আস্থা অর্জনে আমরা সক্ষম হবো এবং জাতীয় রাজনীতিতে শূন্যতা ও অস্থিরতা পূরণ করা সম্ভব হবে”।

জাতীয় পার্টির খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের আহ্বায়ক ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপার সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব ও প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায় এর সঞ্চালনায় আজ বনানীস্থ কার্যালয়ের মিলনায়তনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, “আওয়ামী লীগের সাথে আমাদের নির্বাচনকালীন একটি সমঝোতা হয়েছিলো। সমঝোতায় দূর্নীতি, অন্যায়, অনিয়মে জিরো টলারেন্সে দেশ পরিচালনা করা হবে। ইতিমধ্যেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাঁর নিজ দলের অন্যায়, অনিয়ম ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে। আমারা জাতীয় পার্টি বিরোধী দল হিসেবে এই অভিযানের সর্বাত্মক সমর্থন করি এবং স্বাগত জানাই”।

বিরোধী দলীয় উপনেতা জি.এম. কাদের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, “আমাদের প্রিয় নেতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের অসমাপ্ত কাজ আমরা শেষ করবো। সেই লক্ষ্যে- বিভাগীয় সাংগঠনিক টিম গঠন করা হয়েছে এবং প্রতিটি জেলায় সমস্যার সমাধান করার জন্য, আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে জেলা কমিটিকে শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করে নতুন করে কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি করা হবে”।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ দিদার বখ্ত, যুগ্ম মহাসচিব- শফিকুল ইসলাম মধু, সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সরু, শেখ মাতলুব হোসেন লিয়ন, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার, সাতক্ষীরা জেলার সভাপতি আজহার উদ্দিন, নড়াইল জেলার সভাপতি এ্যাড. ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, ঝিনাইদহ জেলা সভাপতি সাবেক এমপি নুরুদ্দিন, বাগেরহাট জেলা সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলা সভাপতি নাফিস আহমেদ খান টিপু, সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়ার জামিল জুয়েল, মেহেরপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক সাইফুল সেলিম, খুলনা মহানগর সভাপতি শওকত সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ