টুঙ্গিপাড়ায় করোনা উপসর্গে বৃদ্ধের মৃত্যু; চিকিৎসক লাঞ্ছিত

রকিবুল ইসলাম, টুঙ্গিপাড়া:
গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় করোনা উপসর্গে কাজী আলমগীর (৬৫) নামে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। আজ শনিবার সকালে টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই রোগীর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় রোগীর স্বজনরা চিকিৎসকের অবহেলার অভিযোগ এনে কর্তব্যরত চিকিৎসককে লাঞ্ছিত করে।
জানা যায়, টুঙ্গিপাড়া উপজেলার কেড়ালকোপা গ্রামের কাজী আলমগীর ৭/৮ দিন যাবত জ্বর ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গে ভুগছিলেন।শনিবার সকাল পৌনে ৮ টার দিকে স্বজনা তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন । তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করার কার্যক্রম শুরু করে কর্তব্যরত চিকিৎসক। তার কিছুক্ষণ পরেই তিনি সেখানে মারা যান। তখন রোগীর আত্মীয় গাজী তরিকুল সহ কয়েকজন দ্বায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ এনে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ অপূর্ব বিশ্বাসকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এছাড়া তারা নার্সদের উপর তেড়ে যায়।
টুঙ্গিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. ইয়ার আলী মুন্সী বলেন, একজন করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার জন্য যে নিয়মগুলো পালন করা দরকার সে নিয়ম পালন না করেই তাকে চিকিৎসা দিয়েছে কর্তব্যরত চিকিৎসক। কিন্তু তারপরও রোগীর স্বজনরা ডাঃ অপূর্ব বিশ্বাসকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে। আমরা এর উপযুক্ত বিচার চাই।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জসিম উদ্দিন বলেন, দেশের এ ক্রান্তিকালে ডাক্তাররা নিজের জীবন বাজি রেখে রোগীদের সেবা করছে। আজ রোগীর মৃত্যুতে চিকিৎসকের দায়িত্বে কোন অবহেলা ছিল না। রোগীর স্বজনরা শুধু শুধু চিকিৎসককে লাঞ্ছিত করেছে। এ বিষয়কে কেন্দ্র করে চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে টুঙ্গিপাড়া থানায় অভিযোগ দ্বায়ের করার প্রস্তুতি চলছে। চিকিৎসকদের একটাই দাবি তারা নিরাপদ কর্মস্থল চায়। এবিষয়ের সুষ্টু কোন বিচার না হলে আগামীকাল থেকে কর্ম বিরতি পালন করতে পারে চিকিৎসকরা।
টুঙ্গিপাড়া থানার ওসি এএফএম নাসিম জানান, চিকিৎসকের ওপর হামলার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। চিকিৎসকের লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ