গাজীপুরে শিশু শারমিন হত্যার স্বীকারোক্তি দিল দুই আসামী

ওয়াসীম আকরাম,গাজীপুর:

 

হোটেল ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের সাড়ে ৫ বছরের সন্তান শারমীন সুলনাতাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের পরিকল্পনা করেছিল তারা। এরপর তারা শিশু শারমীনকে নিজেদের ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় ভয় পেয়ে সে কান্না শুরু করলে তাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ টয়লেটে লুকিয়ে রাখে। এই ঘটনা শনিবারে [৯ মে ২০২০] ঘটেছে।
ওই ঘটনার দিনই দুইজনকে গ্রেপ্তার করে জয়দেবপুর থানা পুলিশ। তারা হলেন: ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া থানার আকন্দপাড়া পূর্ব শ্রীপুরের মোকলেছুর রহমানের সন্তান মাহবুব মিয়া (২৭) ও নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া থানার বালুচর গ্রামের মাসুদ মিয়ার সন্তান রাব্বী মিয়া (২১)।
রোববার আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয় মাহবুব ও রাব্বী। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জয়দেবপুর থানার এসআই সাদেক হোসেন।
স্মরণীয়, শনিবার (৯ মে ২০২০) এগারটায়শারমিন বাসার পাশে খেলতে যায়। পরে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। এরপর একটি মোবাইল নম্বর থেকে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে ফোন করে অপহরণকারীরা। পরে দুপুরে আব্দুল আলীর বাড়ির ভাড়াটিয়া মাহাবুবের রুম থেকে উদ্ধার করা হয় শারমিনের লাশ।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ