কোম্পানীগঞ্জে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী ও শ্বশুর আটক

 কোম্পানীগঞ্জ, নোয়াখালী প্রতিনিধি: 
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে  শিরিন সুলতান (২৩) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
 ৩ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) দুপুর ৩টার দিকে উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের নিহত গৃহবধূর স্বামীর বাসা কাউছার মঞ্জিল থেকে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের স্বামী শাহপরান ও শ্বশুর হুমায়ন কবির কাউছারকে আটক করেছে।
নিহত গৃহবধূ নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার নবীপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বিষ্ণুপুর গ্রামের ডাক্তার ইমাম উদ্দিনের নতুন বাড়ির ইমাম উদ্দিনের মেয়ে। নিহত গৃহবধূ শিরিন সুলতানার ৬ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।
নিহতের মা দেল আফরোজ জানান, ২০১৩ সালের ৭ জানুয়ারি তার কন্যার সাথে উভয় পরিবারের সম্মতিতে শাহপরানের বিয়ে হয়। কিন্ত বিয়ের পর থেকে বিদেশ যাওয়ার টাকার জন্য প্রায় তার কন্যাকে স্বামী,শ্বশুর,শাশুড়ি মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করত। এ নিয়ে একাধিকবার সামাজিকভাবে শালিশী বৈঠকও হয়।
নিহতের স্বামী গত কিছুদিন আগে প্রথম বউয়ের অনুমতি ছাড়া আরেকটি বিয়ে করে। তিনি  দাবি করেন, তার মেয়ের মৃত্যুর নেপথ্যে শ্বশুরের পরিবার জড়িত। নিহতের মা আরও জানান, তারা এ ঘটনায় মামলা দায়ের করবেন।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. সেলিম জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই গৃহবধূর মৃত্যু হয়।
এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.আসাদুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় স্বামীও শ্বশুরকে আটক করা হয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। নিহতের পরিবার মামলা করলে এ বিষয়ে  আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা করা হবে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ