কুষ্টিয়ায় দু’দল মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে গোলাগুলিতে নিহত-১

নাব্বির আল নাফিজ, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :

 

কুষ্টিয়া জেলার সদর উপজেলার মোল্লাতেঘরিয়া ক্যানালপাড়া এলাকায় দু দল মাদক ব্যবসায়ীর সাথে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের ত্রিমুখী গোলাগুলিতে সুজন (৩০) নামের এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে ১ টি বিদেশি পিস্তল, ১ রাউন্ড গুলি, ৫০ বোতল ফেন্সিডিল, ও ৩০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ । এঘটনায় ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে ।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ১.৩০ মিনিটের সময় আমাদের কাছে খবর আসে সদর উপজেলার মোল্লাতেঘরিয়া ক্যানালপাড়া এলাকায় দইু দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলি চলছে। আমি ও আমার সঙ্গীয় ফোর্সসহ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছালে মাদক কারবারিরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশের উপর গুলি বর্ষণ করতে থাকে। আত্মরক্ষায় পুলিশ ও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে মাদক কারবারিরা পিছু হটে পুকুরে লাফ দিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল তল্লাশি করে একজনকে পড়ে থাকতে দেখে তাকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১ টি বিদেশি পিস্তল, ১ রাউন্ড গুলি, ৫০ বোতল ফেন্সিডিল, ও ৩০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে ।

এ ঘটনায় পুলিশের এস আই মোস্তাফিজুর রহমান, এ এস আই তানভির আহম্মেদ, কনস্টেবল শফিকুলসহ ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে নিহতের নাম সুজন মালিথা (৩০) বলে জানা যায়। নিহত সুজনের নামে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মাদক সহ বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। নিহত সুজন মালিথা (৩০) সদর উপজেলার টাকিমারা গ্রামের ইসমাইল মালিথার পুত্র।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি সময়ে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত (পিপিএম)বার এর নির্দেশনায় মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্ত (ওসি) কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন এর নেতৃত্বে কুষ্টিয়া জেলা জুড়ে মাদক, সন্ত্রাস, কিশোর গ্যাং ও অপরাধ সহ বিভিন্ন অপারাধমূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে কুষ্টিয়া জেলা পুলিশ।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ