করোনার উপসর্গে দুদক পরিচালকের মৃত্যু

 

করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুদকের একজন পরিচালক মারা গেছেন। ৬ এপ্রিল  (সোমবার) ভোরে তিনি মারা যান। তার মৃত্যুর বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব মো. রেজাউল আলম। মারা যাওয়া দুদকের ওই পরিচালকের স্ত্রী-সন্তানকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

মারা যাওয়া দুদক পরিচালক প্রশাসন ক্যাডারের ২২তম ব্যাচের কর্মকর্তা ছিলেন। তিনি বেশ কিছু দিন ধরে কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মো. রেজাউল আলম ও মারা যাওয়া দুদক পরিচালক প্রশাসন ক্যাডারের একই ব্যাচের কর্মকর্তা।

দুদকের ওই পরিচালক কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। প্রায় সপ্তাহখানেক কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

তিনি করোনাভাইরাসের আক্রান্ত ছিলেন কি না সেটি নিশ্চিত হতে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর তথ্য মতে, গত ৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্ত হয়। গতকাল রোববার পর্ন্ত রোগীর সংখ্যা ৮৮। মারা গেছেন ৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ৩৩ জন।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ