ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে লোক-প্রশাসন বিভাগের আয়োজনে পিঠা উৎসব

রাকিব হোসেন, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি-
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) পিঠা উৎসবের আয়োজন করেছে লোক-প্রশাসন বিভাগ। লোক প্রশাসন দিবস উপলক্ষ্যে রবিবার (০১ মার্চ) বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের  মীর মশাররফ হোসেন একাডেমিক ভবনের দ্বিতীয় তলার করিডরে এ পিঠা উৎসব আয়োজন করেছে বিভাগটি।
বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্যের সাথে মিশে আছে নিজস্ব খাদ্যাভ্যাস ।  যার মধ্য একটি  পিঠা-পুলি। এ পিঠা উৎসবে তাদের স্টলে বিভিন্ন ধরনের বাহারি রঙের পিঠা  দেখা যায়। গ্রাম-বাংলার বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী পিঠার আয়োজন করে। উৎসবে হৃদয় হরণ, বিবি খানা, পাটিসাপটা, দুধ পুলি, গোলাপ, বরফি, নকশি, পাকান, ভাপা পুলি, মাছ পিঠা, ব্যান্ড পিঠা, পাঁচতারা, জর্দার বরফি, চিংড়ি, দুধ চিতই ও খেজুর পিঠাসহ প্রায় ১০১ রকমের ঐতিহ্যবাহী পিঠা প্রদর্শন করা হয়।
পিঠা উৎসবে বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. জুলফিকার হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা উপস্থিত ছিলেন। এসময় প্রক্টর প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মন, বিভাগের প্রফেসর ড. রাকিবা ইয়াসমিন, প্রফেসর ড. এ কে এম মতিনুর রহমান, প্রফেসর ড. আসাদুজ্জামান, প্রফেসর মোহাম্মদ সেলিম, প্রফেসর গিয়াস উদ্দিন, প্রফেসর ড. মুন্সী মুর্তজা আলীসহ বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এমন বড় আয়োজন আমাদের বিমোহিত করেছে। আমাদের ভিতরে লুকায়িত পিঠার জন্য যে অজানা আকুতি সেটা পুরণ করেছে লোক প্রশাসন বিভাগ। এই পিঠা উৎসবের আয়োজনে আসতে পেরে আমরা কৃতজ্ঞ।
বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আগামী ৩ মার্চ লোক প্রশাসন দিবস পালিত হবে। এ উপলক্ষে ৪ দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে লোক প্রশাসন বিভাগ। কর্মসূচির তৃতীয় দিনের অংশ হিসেবে এ পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ