ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তার আপত্তিকর মন্তব্যের প্রতিবাদে স্মারকলিপি

রাকিব হোসেন ,ক্যাম্পাস প্রতিনিধি:
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের শাখা কর্মকর্তা আরিফুল হক শিক্ষার্থীদের যোগ্যতা নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্যের প্রতিবাদে স্মারকলিপি প্রদান করেছে ইবি শাখা ছাত্র মৈত্রী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দুইটার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এর আগে বেলা ১১ টার দিকে শাখা ছাত্রমৈত্রী স্মারকলিপি প্রদান করে।
জানা যায়, গতকাল রবিবার (১৫ জানুয়ারি) চতুর্থ দিনের মত কর্মবিরতি চলাকালে বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন লাইব্রেরি শাখা কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম। এসময় তিনি বলেন, ‘একটা ছাত্র আসলে আবেদন পত্র লিখতে পারে না, আমি তার প্রমাণ। সার্টিফিকেট তোলার সময় আবেদন পত্র লিখতে হয়। তারা আবেদন পত্র লিখতে পারে না।’
উপাচার্যের সাথে সাক্ষাৎকালে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমরা আমাদের যোগ্যতা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছি। তিনি আমাদের যোগ্যতা নিয়ে কথা তুলেছেন। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই। পাশাপাশি তার দ্রুত শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, কর্মকর্তার এ ধরনের মন্তব্যে আমিও ব্যাথিত হয়েছি। তোমরা যে তাদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার জন্য  সময় বেধে দিয়েছো। সে যদি না ক্ষমা চায় তাহলে তদন্ত কমিটি গঠন করে ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।
শাখা ছাত্রমৈত্রী সভাপতি আব্দুর রউফ বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সেবা করার জন্য মূলত বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়োগ প্রদান করা হয়ে থাকে। কিন্তু আরিফুল হক শিক্ষার্থীদের যোগ্যতা নিয়ে যে প্রশ্ন তুলেছে যা কাম্য নয়। আমরা অতি দ্রুত তার ব্যাপারে তদ প্রমাণ দিয়ে ভর্তি হয়েছে। সেক্ষেত্রে এমন মন্তব্য ক্ষমার অযোগ্য। এটি গুরুতর অন্যায়। আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে সে ক্ষমা না চাইলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবো।

পাঠকের মতামত

আরো খবর

ফেসবুকে আমরা

আমাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ